ফুটবলের ডাকনাম সকার যেভাবে!

ফুটবলের ডাকনাম সকার

ফুটবল, সারাবিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা।সারাবিশ্বে এটি ফুটবল খেলা নামে পরিচিত হলেও এর রয়েছে একটুও ডাকনামও। ফুটবলের ডাকনাম হলো ‘সকার’। বিশ্বজুড়ে এটি ফুটবল নামে জনপ্রিয়তা পেলেও অনেকেই এটিকে সকার বলে ডাকে। বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একচেটিয়া ভাবে এটি সকার হিসেবে পরিচিত। কিন্তু আজব হলেও সত্যি খেলার মাঠে আমেরিকানরা ‘সকার’ বলে চিৎকার করে গলা ফাটালেও নামটি এসেছে আটলান্টিকের ওপার থেকে।

প্রায় হাজার বছর ধরে পা দিয়ে লাথি মেরে, আঘাত করে, ছুড়ে মেরে বা বল চালিয়ে খেলা হয়ে আসছে। তবে উনবিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি থেকে অনেক খেলা – যেমন বেসবল, সকার এবং আমেরিকান ফুটবল নির্দিষ্ট নিয়মের আওতায় আসতে শুরু করে। ১৮৬৩ সালে কয়েকটি ইংলিশ স্কুল এবং ক্লাবের প্রতিনিধিরা ফুটবল খেলার সংস্কার করেন ও একটি নির্দিষ্ট নিয়ম তৈরি করেন। যা পরবর্তীতে আধুনিক ফুটবলে রূপান্তরিত হয়।

নিয়ম তৈরির পাশাপাশি ফুটবল খেলাকে নিয়ন্ত্রণের জন্য নতুন একটি সংস্থা গঠন করা হয়। সংস্থাটিকে ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বলে অভিহিত করা হয়। সংস্থার নামের কারণে গোটা ব্রিটেনে এটির নাম ‘এসোসিয়েশন ফুটবল’ নামে পরিচিত হয়ে ওঠে। শব্দটি তাদের নির্দিষ্ট খেলাকে অন্যান্য জনপ্রিয় খেলা যেমন ‘রাগবি ফুটবল’ থেকে আলাদা করার জন্য ব্যবহৃত হয়েছিল।

‘সকার’ শব্দটির জন্ম একেবারেই অপ্রত্যাশিতভাবে।
মূলত এর জন্য দায়ী সেসময় ব্রিটিশদের স্থানীয় ভাষায় ডাকনাম যুক্ত করার অভ্যাস। বিশেষ করে সেই সময়ের অক্সফোর্ড শিক্ষার্থীদেরকেই বেশি দায়ী করা হয়। ১৮৮০ সালের দিকে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ‘রাগবি ফুটবল’ এবং ‘এসোসিয়েশন ফুটবল’ এর মধ্যে পার্থক্য তৈরি করে। মূলত এসোসিয়েশন ফুটবলের ‘এসোসিয়েশন’ শব্দকে ছোটো করে তারা বলতে শুরু করে ‘এসোসার’। পরবর্তীতে এটি আরো ছোটো হয়ে ‘সকার’ হয়। ‘রাগবি ফুটবল’ সংক্ষেপে ‘রাগার’ হয়ে ওঠে আর ‘অ্যাসোসিয়েশন ফুটবল’ হয়ে ওঠে ‘সকার’।

তাং রাজবংশঃ চীনের শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতির স্বর্ণযুগ (পর্ব-২)

ক্রমশ ‘সকার’ নামটি দ্রুত অক্সফোর্ডের বাইরে ছড়িয়ে পড়ে এবং লোকমুখে জনপ্রিয়তা পেয়ে যায়। তবে গ্রেট ব্রিটেনে ডাক নামের চেয়ে ‘সকার’ কখনও বেশি কিছু হয়ে উঠেনি। বিংশ শতাব্দীতে এসে রাগবি ফুটবল সাধারণ রাগবি হিসেবে পরিচয় পায় তখন অ্যাসোসিয়েশন ফুটবল কেবল শুধুই ফুটবল হিসাবে পরিচিতি পেয়ে যায়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, উনবিংশ শতাব্দীর শেষের দিকে রাগবি এবং এসোসিয়েশন ফুটবল যাত্রা শুরু করে। শীঘ্রই এসোসিয়েশন ফুটবল যুক্তরাষ্ট্রে অন্য খেলাগুলোর থেকে অধিক জনপ্রিয় হয়ে ওঠে । যুক্তরাষ্ট্রে মূলত গ্রিডেরোন ফুটবল চালু হয়। তবে বেশিরভাগ লোকেরা প্রথম শব্দটি নিয়ে কখনই মাথা ঘামায় না। ফলস্বরূপ, আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন-ফুটবলের খেলোয়াড়রা ফুটবলকে ‘সকার’ বলা শুরু করে । পরবর্তীতে ১৯১০ সালে আমেরিকান সকারের অফিসিয়াল অর্গানাইজিং সংস্থা গঠন করা হয় এবং নাম দেওয়া হয়, ‘ইউনাইটেড স্টেটস সকার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন’। পরবর্তীতে আামেরিকাজুড়ে ‘সকার’ নামটি প্রতিষ্ঠা পায়। এরই প্রতিক্রিয়ায় ব্রিটিশরা ১৯৮০ সালের পরবর্তী সময়ে ‘সকার’ বলা ছেড়ে দেয়।

সকার বা ফুটবল বা সকার ফুটবল নাম যেমন বা যেটাই হোক ফুটবল সারাবিশ্বে প্রভাবশালী ও জনপ্রিয় খেলা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে, জায়গা করে নিয়েছে শত কোটি ফুটবল প্রেমীর হৃদয়ে।