বাংলাদেশের আয়তন কত? যেভাবে হলো ২,৪৭,৬৭৭ বর্গ কিঃমিঃ

বাংলাদেশের বর্তমান আয়তন ও জনসংখ্যা কত বেড়েছে একসময় কেবল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য বহুল আকাঙ্ক্ষিত হলেও বর্তমানে এর উত্তর বিভিন্ন চাকুরী প্রার্থীদের জন্য মহামূল্যবান হয়ে দাঁড়িয়েছে ! প্রশ্ন হচ্ছে বাংলাদেশের বর্তমান আয়তন কত? বাংলাদেশের আয়তন বাড়ছে কি? নাকি ভূঃগর্ভে তলিয়ে গেছে কিছু?

এ বিষয়ে সন্ধিহান হয়ে প্রায়ই আমরা গুগোলের কাছে স্মরণাপন্ন হই,

People also search –
বাংলাদেশের আয়তন বৃদ্ধি হলো কি না,
বাংলাদেশ কত বর্গ কিলোমিটার ?

বাংলাদেশের আয়তন কত ?

দেশ স্বাধীন হবার পর বিভিন্ন সময় বাংলাদেশের উপকূল অঞ্চলে দ্বীপ জাগলেও গত ২০ বছরে অস্বাভাবিকভাবে প্রায় পঞ্চাশোর্ধ দ্বীপ জাগে বিভিন্ন জরিপে দেখা যায় তার মোট সম্ভাব্য আয়তন প্রায় ১৬০০ বর্গকিলোমিটার।

বাংলাদেশের আয়তন
Photo by slon_dot_pics from Pexels

এদিকে ছিটমহল সহ ১,৪৭,৬১০ এর সাথে এই আয়তন অর্থ্যাৎ ১৬০০ বর্গকিলোমিটার যুক্ত করলে বাংলাদেশের আয়তন দাঁড়ায় ১,৪৯,২১০ বর্গকিলোমিটার (প্রায়)।

আরও পড়ুনঃ উদ্যোক্তা হতে হলে কি করবেন? দ্যা আনফেয়ার এডভান্টেজ (বুক রিভিউ)

তবে এই দুটি ক্ষেত্র থেকে বাংলাদেশের আয়তনে খুব একটা ফারাক না হলেও বর্তমান আয়তনে সবচেয়ে বড় পার্থক্য গড়ে দিয়েছে বাংলাদেশের সমুদ্রজয়। বেশ ক’বছর আগে ভারত থেকে পাওয়া প্রায় ২৮ হাজার ৪শত ৬৭বর্গকিলোমিটার ও অন্যদিকে মায়ানমারের কাছ থেকে প্রায় ৭০হাজার বর্গকিলোমিটার সমুদ্র সীমা জয় করার সুবাদে বাংলাদেশের মোট আয়তন হতে পারে ২,৪৭,৬৭৭ বর্গকিলোমিটার প্রায়। যা পূর্বের আয়তনের চেয়ে প্রায় ১লাখ বর্গকিলোমিটার বেশি। বাংলাদেশের আয়তনতবে সরকারি ভাবে সঠিক আয়তন নির্ধারন না করার ফলে তা এখনো বিভিন্ন পাঠ্যবইয়ে ১,৪৭,৫৭০ বর্গকিলোমিটার হিসেবেই গননা করা হচ্ছে। এদিকে প্রতিনিয়তই নতুন নতুন দ্বীপ সৃষ্টির ফলে বাংলাদেশের বর্তমান আয়তন প্রতিনিয়ত আরো বাড়ছে। তাই এটিও বলা মুশকিল যে ঐ মুহুর্তে বাংলাদেশের আয়তন কত বর্গ কিলোমিটার কিংবা বাংলাদেশের আয়তন কত বর্গ মাইল।

সাজেশনঃ যে শিক্ষামূলক গল্প পাল্টে দিয়েছে লাখো লোকের জীবন


বোনাস:


কোন উপদেশটি আপনার জীবনকে পালটে দিতে পারে? 

নিজের অতীতকে ভুলে যাওয়া যাবেনা। একইসাথে অতীতকে আঁকড়ে ধরে বেঁচে থাকারচেষ্টাও করা যাবেনা।

গুগোল সিইও সুন্দার পিচাইএর জীবন থেকে একবার কিছু কথা বলেছিলেন, “আমি যখন প্রথম শিক্ষার উদ্দেশ্যে ইউনাইটেড স্টেটস অফ আমেরিকার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে এসেছিলাম সেটিই ছিলো আমার জীবনের প্রথম বিমানে চড়ার অভিজ্ঞতা । বিমানের ঐ টিকিটের মূল্য ছিলো আমার বাবার এক বছরের মোট বেতনের সমান।”

সেই মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে সুন্দর পিচাই বর্তমানে এ বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যবসায়িক সংস্থা, গুগোলের প্রধান নির্বাহী তথা সর্বোচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। তিনি সম্ভাব্য হিসেবে বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া ব্যক্তি। গত বছরেও তার মোট আয় ছিলো প্রায় ২৫০ মিলিয়ন ডলার।

Courtesy Wikimedia

জীবনে সাফল্যের সর্বোচ্চ চূঁড়ায় ওঠার পরও তার বিরল সরলতা ও সাদামাটা জীবনযাপনে সবাই মুগ্ধ থাকেন।

আপনি বড় স্বপ্ন দেখতেই পারেন যা হয়ত জীবনে কখনো বাস্তবেও রূপ দিতে পারবেন। নিরলস পরিশ্রম ও একাগ্রতার মাধ্যমে জীবনে অনেক দূরে যেতেই পারেন, তবে অতীত তথা শিকড়গুলো কখনো ভুলে যাবেননা। মানুষের থাকার মত সর্বোত্তম গুণাবলি হলো নম্রতা ও সরলতা। – গুগোল সিইও, সুন্দর পিচাই।

ল্যারি পেইজ: সবচেয়ে বাজে বন্ধু সম্পর্কে কি বললেন?