টেম্পল রান: যেভাবে পেলো অভূতপূর্ব সাফল্য ও জনপ্রিয়তা

টেম্পল রান - obboymedia.com
টেম্পল রান - obboymedia.com

টেম্পল রান। স্মার্টফোনে ব্যবহার করেছেন আর টেম্পল রান খেলেননি এমন ব্যক্তি মেলা দুস্কর। ছেলে থেকে বুড়ো সবারই পছন্দের গেম। অফিস কিংবা অবসর, আড্ডা কিংবা জ্যাম সব জায়গাতেই পছন্দ এই গেমটি। এর জনপ্রিয়তা শুধু আমাদের দেশেই নয় সারাবিশ্বেই আকাশ ছোঁয়া।

টেম্পল রান গেমটি তৈরি করে ইমাঞ্জি স্টুডিও। ২০১১ সালের আগস্টে এটি বাজারে ছাড়ে তারা। প্রথমে ios ব্যবহারকারীদের জন্য এটি খেলার সুযোগ দেওয়া হয়। পরবর্তীতে ২০১২ সালের মার্চ মাসে এন্ড্রয়েড বব্যবহারকারীদের জন্য গুগল প্লে-স্টোরে আপলোড করা হয়। গেমটি খুব অল্প সময়েই জনপ্রিয়তা লাভ করে । দ্রুতই এর ডাউনলোড সংখ্যা ১০০ মিলিয়ন ছাড়িয়ে যায়। জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে ইমাঞ্জি ২০১৩ সালে এর নতুন সংস্করণ আনে। যার নাম দেওয়া হয় দ টেম্পল রান টু। বর্তমানে প্লে স্টোরে দুই সংস্করণই ডাউনলোড করা হয়েছে ৫০০ মিলিয়নেরও বেশি। ৮ বছর পর এসে টেম্পল রান ওয়ান -এর বর্তমান রেটিং ৪.১/৫ এবং টু -এর ৪.২/৫।

 

টেম্পল রান - obboymedia.com
টেম্পল রান – obboymedia.com

ইমাঞ্জি স্টুডিও ২০০৮ সালো যাত্রা শুরু করে স্বামী-স্ত্রী কিথ শেফার্ড ও নাটালিয়া লাক্কানোভার হাত ধরে। হুট করে টেম্পল রান তাদের সাফল্য এনে দিয়েছে এটা বললে ভুল হবে। মেঘের আড়ালে সূর্য হাসে প্রবাদটি ইমাঞ্জি স্টুডিওর জন্য যথাযথ। বছরের পর বছর তাদের গেমগুলো ফ্লপ হওয়ার পর তারা সাফল্যের মুখ দেখে। ২০০৮ সালে তাদের প্রথম গেমটি বাজারে ছাড়ার পর টানা তিনটি গেম ফ্লপ হয়। এরপর ২০০৯ সালে হার্বার মাস্টার গেমটির মধ্য দিয়ে তারা সাফল্যের মুখ দেখে। কিন্ত এরপর আবার টানা তিনটি গেম ফ্লপ হয়। যার মধ্যে একটি বড় বাজেটের গেমও ছিলো। যা শেফার্ড তাদের সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ ও বড় ফ্লপ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তাদের এই ব্যর্থতাগুলো বিশ্লেষণ করে একটা নতুন রানিং গেম আনার সিদ্ধান্ত নেয় তারা। যার নাম দেওয়া হয় টেম্পল রান। তবে পরিপার্শ্বিক আরও কিছু বিষয় তাদের অভূতপূর্ব এই সাফল্যের পিছনে কাজ করেছে।

পরিচিত ফরমুলার স্বদব্যবহার

অ্যাংরি বার্ডস যেমন পদার্থবিজ্ঞান ভিত্তিক পাজেল তৈরি করেছিলো, তেমনি টেম্পল রানও অন্তহীন চলমান গেমটি রূপায়িত করে। তবে টেম্পল রানের সুবিধার জায়গা ছিলো, এটি অ্যাংরি বার্ডসের মতো একেবারেই নতুন কোনো গেম ছিলোনা। বরঞ্চ টেম্পল রানের পূর্বে একই ধরণের দুটি গেম জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। ২০০৯ সালে বাজারে আসে টু ডি মিনিমালিস্ট প্লাটফর্মার কানাবাল্ট এবং ২০১০ সালে মুক্তি পেয়েছিল ওভার-দ্য টু অ্যাডাল্ট সুইম -প্রচারিত রোবট ইউনিকর্ন আক্রমণ। টেম্পল রানের আগেই গেম দুটি জনপ্রিয়তা টেম্পল রানের সফল হওয়ার অন্যতম কারণ মানুষ এই ধরণের গেম বা ফরমুলার সাথে ইতিমধ্যে পরিচিত ছিল। খেলোয়াড়রা জানতো যে তাদের পিট, আগুন এবং ঝুলন্ত গাছের মতো প্রতিবন্ধকতা এড়াতে হবে। ইমাঞ্জি যেটা করে, গেমটিকে আরও সহজ ও চ্যালেঞ্জিং করে তোলে।টেম্পল রানের ফরমুলাটির সাথে মানুষ পরিচিত থাকলেও গেমটির নিজস্ব স্বাতন্ত্র্যতা রয়েছে। এছাড়া ফরমুলার সাথে তারা যুক্ত করে থ্রিডি পরিবেশ এবং তৃতীয় ব্যক্তি দৃষ্টিকোণ যা খেলটিকে আলাদা করতে সহায়তা করে এবং ব্যবহারকারীকে নতুন অভিজ্ঞতা দেয়।

সঠিক সময়ে গেমটি বাজারে আসা

টেম্পল রান বাজারে আসার পরপরই ২০১১ সালের তৃতীয় ভাগে মার্কেটে আসে আইফোন সিরিজের নতুন ফোন। অক্টোবরে বাজারে ছাড়া হয়, আইফোন ফোর এস। প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই আইফোনটি দ্রুত বিক্রি হতে থাকে । ২০১১ সালের শেষ ভাগে ও ২০১২ সালের প্রথম ভাগে আইফোন বিক্রি সংখ্যার সবচেয়ে বড় লাফটি ছিল। ১৭ মিলিয়ন ইউনিট থেকে বেড়ে ৩৭ মিলিয়ন ইউনিট বিক্রিতে পৌঁছে। হঠাৎ আইফোনের এতো বিক্রি গেমটিকে বেশি সংখ্যায় গ্রাহক পায়য়ে দেয়। এটার প্রভাব একটায় পড়েছিলো,২০১১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই, অ্যাপটি স্টোরের “সর্বাধিক ডাউনলোড হওয়া ৫০ অ্যাপ্লিকেশন” তালিকায় জায়গা করে নেয়।

বুদ্ধিদীপ্ত ব্যবসায়ীক মডেল

টেম্পল রান ডেভেলপার ইমামঙ্গিও বুদ্ধিমত্তার সাথে ব্যবসায়িক মডেলটি তৈরি করেছে। তারা গেমটির ব্যবহারের জন্য ডলার না রেখে ফ্রিমিয়াম মডেল করে দেওয়া হয়। এতে ব্যবহারকারীদের প্রতিবন্ধকতা দূর হয়। ইমাঙ্গির সিদ্ধান্তটি ব্যতিক্রমী হিসাবে প্রমাণিত হয়েছে কারণ তখন অনেক জনপ্রিয় গেমের জন্য অর্থ ব্যয় করতে হতো।ডাউনলোড ব্যয়ের পরিবর্তে, টেম্পল রান একটি আপগ্রেড সিস্টেমের মাধ্যমে অর্থোপার্জন করে।

টেম্পল রান যখন নেশা

আপনার মস্তিষ্ক এটি খেলার সময় আরও রান করতে চাই। । যখন আপনি সোয়াইপ করতে ভুলে যান, একটি লাফ মিস করেন, আগুনে পুড়ে যান তখন আপনার মেজাজ খারাপ হয় কারণ এটাতো সহজ ছিলো। এতে জেদ আরও বেড়ে যায়। এছাড়াও এর চরিত্রগুলো আনলক করতে কিংবা কোনো আপগ্রেডের জন্য আপনাকে টাকা খরচ করতে হয়না বরং কয়েন সংগ্রহ করতে হয়। তাই আপনি বারবার গেসটি খেলতে উৎসাহীত হন। সবমিলিয়ে টেম্পল রান আপনাকে খেলা চালিয়ে যাওয়ার জন্য সফলভাবে প্ররোচিত করে।

কিন্তু, এখন কি অবস্থায় আছে টেম্পল রান ? যা এক সময় এত জনপ্রিয় হয়েছিল এমন কী ঘটেছিল যে আগের জনপ্রিয়তায় নেয় ?

উত্তর, এটি এখনও আছে। তবে, খ্যাতি এবং ডাউনলোড সংখ্যা অবশ্যই নিচে নেমে গেছে। উপন্যাসের নতুন চরিত্র এবং পরিস্থিতি যুক্ত না হওয়া পর্যন্ত কোনও গেম টিকে থাকতে পারে না। এটি কারণ খেলোয়াড়রা খুব শীঘ্রই বিরক্ত হয়ে যায়। এছাড়াও, বাজারে এমন কঠোর প্রতিযোগিতা রয়েছে যে দীর্ঘকাল বেঁচে থাকা খুব কঠিন। তবে বড়কথা টেম্পল রান টিকে আছে।